1. abrajib1980@gmail.com : মো: আবুল বাশার রাজীব : মো: আবুল বাশার রাজীব
  2. abrajib1980@yahoo.com : মো: আবুল বাশার : মো: আবুল বাশার
  3. chakroborttyanup3@gmail.com : অনুপ কুমার চক্রবর্তী : অনুপ কুমার চক্রবর্তী
  4. Azharislam729@gmail.com : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
  5. farhana.boby87@icloud.com : Farhana Boby : Farhana Boby
  6. mdforhad121212@yahoo.com : মোহাম্মদ ফরহাদ : মোহাম্মদ ফরহাদ
  7. harun.cht@gmail.com : চৌধুরী হারুনুর রশীদ : চৌধুরী হারুনুর রশীদ
  8. shanto.hasan000@gmail.com : রাকিবুল হাসান শান্ত : রাকিবুল হাসান শান্ত
  9. humiraproma8@gmail.com : হুমায়রা প্রমা : হুমায়রা প্রমা
  10. dailyprottoy@gmail.com : প্রত্যয় আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রত্যয় আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  11. namou9374@gmail.com : ইকবাল হাসান : ইকবাল হাসান
  12. hasanuzzamankoushik@yahoo.com : হাসানুজ্জামান কৌশিক : এ. কে. এম. হাসানুজ্জামান কৌশিক
  13. masum.shikder@icloud.com : Masum Shikder : Masum Shikder
  14. niloyrahman482@gmail.com : Rahman Rafiur : Rafiur Rahman
  15. Sabirareza@gmail.com : সাবিরা রেজা নুপুর : সাবিরা রেজা নুপুর
  16. prottoybiswas5@gmail.com : Prottoy Biswas : Prottoy Biswas
  17. rajeebs495@gmail.com : Sarkar Rajeeb : সরকার রাজীব
  18. sadik.h.emon@gmail.com : সাদিক হাসান ইমন : সাদিক হাসান ইমন
  19. mhsamadeee@gmail.com : M.H. Samad : M.H. Samad
  20. Shazedulhossain15@gmail.com : মোহাম্মদ সাজেদুল হোছাইন টিটু : মোহাম্মদ সাজেদুল হোছাইন টিটু
  21. shikder81@gmail.com : Masum shikder : Masum Shikder
  22. showdip4@gmail.com : মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ : মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ
  23. tanimshikder1@gmail.com : Tanim Shikder : Tanim Shikder
  24. riyadabc@gmail.com : Muhibul Haque :
  25. Fokhrulpress@gmail.com : ফকরুল ইসলাম : ফকরুল ইসলাম
  26. uttamkumarray101@gmail.com : Uttam Kumar Ray : Uttam Kumar Ray
  27. msk.zahir16062012@gmail.com : প্রত্যয় নিউজ ডেস্ক : প্রত্যয় নিউজ ডেস্ক

নেতাজি ১২৫। মোদির কমিটিতে মমতা–বুদ্ধ, আছেন মিঠুন–সৌরভও

  • Update Time : শনিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৩১ Time View

বিশেষ সংবাদদাতা,কলকাতা : নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫তম জন্মজয়ন্তী নিয়ে এবার উচ্চপর্যায়ের কমিটি গড়ে ফেললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে সেই কমিটিতে রয়েছেন বাংলার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য এবং বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মে মাসে বাংলার বিধানসভা নির্বাচনের আগে কেন্দ্রীয় সরকারের এই পদক্ষেপ রীতিমতো চর্চার আবহ তৈরি করে দিয়েছে রাজনৈতিক মহলে। উল্লেখ্য, এর আগে পশ্চিমবাংলা সরকারও নেতাজিকে নিয়ে কমিটি তৈরি করেছে। কমিটির চেয়ারপার্সন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নোবেলজয়ী দুই অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন ও অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে এই কমিটির সদস্য করা হয়েছে।

আগামী বছর পূর্ণ হবে নেতাজির ১২৫তম জন্মদিন। তাই এই বছরের ২৩ জানুয়ারি থেকেই অগ্নিযুগের এই সাগ্নিক পুরোধার ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন শুরু করে দিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। সেইজন্য বেশ কিছুদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি টুইট করে জানিয়েছিলেন, নেতাজির ১২৫তম জন্মজয়ন্তী উদ্‌যাপনে একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি তৈরি করা হবে। শনিবার কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রকের তরফে সেই উচ্চপর্যায়ের কমিটির ৮৫ জন সদস্যের নাম প্রকাশ করা হয়েছে। কমিটির সদস্যদের বড় অংশই বাঙালি। নেতাজিকে শ্রদ্ধা জানাতে আগামী এক বছর ধরে কলকাতা, দিল্লি, মণিপুর–সহ দেশ ও বিদেশে কোথায় কী অনুষ্ঠান হবে, আর কী কী পদক্ষেপ করা হবে, সেই বিষয়ে এই কমিটিই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানা গিয়েছে।

২৩ জানুয়ারি কলকাতা ছাড়াও নেতাজির জন্মস্থান ওডিশার কটক এবং আইএনএ–র প্রথম দপ্তর মণিপুরের মোরাংয়ে নেতাজি জয়ন্তী সাড়ম্বরে পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নরেন্দ্র মোদির সরকার। কলকাতায় নেতাজির নামে মিউজিয়াম, মোরাংয়ের দপ্তরটিকে সংস্কার করে সেখানেও একটি মিউজিয়াম তৈরির পরিকল্পনা কেন্দ্রীয় সরকার করেছে। দু’বছর আগে নেতাজি জয়ন্তীতেই লালকেল্লায় নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু মিউজিয়ামের উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। এবছর তার পরিধি বাড়িয়ে আরও একটি ডিজিটাল উইং তৈরি করারও পরিকল্পনা রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের। নেতাজির ১২৫তম জন্মবার্ষিকীতে ২৩ জানুয়ারি কলকাতায় উপস্থিত থাকতে পারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ওইদিন বিকেলে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে নেতাজি স্মরণ কর্মসূচিতে তাঁর ভাষণ দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ ছাড়া বসু পরিবারের তরফে ২৩ জানুয়ারি বাংলায় উপস্থিত থাকার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধও করা হয়েছে।

এ ছাড়াও রেড রোডে নেতাজি মূর্তিতে মালা দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করা হয়েছে বসু পরিবারের পক্ষ থেকে। তবে এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের কথা এখনও জানায়নি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর। উল্লেখ্য, ওইদিন বেলা বারোটা নাগাদ রেড রোডের নেতাজি মূর্তিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরও মালা দেওয়া এবং পদযাত্রায় অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে। তবে বসু পরিবার অনেক আগে থেকেই প্রধানমন্ত্রীকে ওই প্রস্তাব দিয়েছে। পরে মুখ্যমন্ত্রীও ওইদিন একই কর্মসূচির কথা ঘোষণা করেছেন। আবার, কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে নেতাজি কন্যা হিসেবে পরিচিত অনিতা বসু পাফকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির জন্য এ বছরের অনুষ্ঠানে তিনি উপস্থিত থাকতে পারবেন না। তবে আগামী বছর সমাপ্তি অনুষ্ঠানে তিনি ভারতে আসবেন বলে জানিয়েছেন। কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রকের একটি বিজ্ঞপ্তিতে এদিন বলা হয়েছে, ‘কমিটির সদস্যদের মধ্যে আছেন বিশিষ্ট নাগরিক, ইতিহাসবিদ, লেখক, বিশেষজ্ঞ, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর পরিবারের সদস্য এবং আজাদ হিন্দ বাহিনীর (আইএনএ) সঙ্গে যুক্ত বিশিষ্ট মানুষ।’

কমিটির চেয়ারম্যান হয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। এই কমিটিতে রয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসিআই) প্রেসিডেন্ট তথা ভারতীয় ক্রিকেট দলের সর্বকালের অন্যতম সেরা অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। রয়েছেন বাঙালির প্রিয় মানুষ তথা অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীও। কমিটিতে বাংলার প্রতিনিধির সংখ্যাই বেশি। সদস্য হিসেবে কমিটিতে আছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন, কেন্দ্রীয় বস্ত্রমন্ত্রী স্মৃতি ইরানি–সহ ১০ জন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। কমিটির সদস্য করা হয়েছে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকেও। রয়েছেন নেতাজির পরিবারের সদস্যরা, লোকসভায় তৃণমূলের দলনেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, নেতাজি গবেষক পূরবী রায়, লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরী, চিত্র পরিচালক কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, মেজর জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) জি ডি বক্সিরাও।

বাংলার দুই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় এবং দেবশ্রী চৌধুরি রয়েছেন এই কমিটিতে। কমিটিতে বাংলার রাজনীতি থেকে রাখা হয়েছে শুভেন্দু অধিকারী, বর্ধমান পূর্বের সাংসদ সুনীল মণ্ডল, সাংসদ সৌমিত্র খাঁ, বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকেও। এ ছাড়া কমিটিতে রয়েছেন মুম্বইয়ের বিখ্যাত অভিনেত্রী কাজল, সুরকার এ আর রহমানও। নেতাজির জন্ম ১৮৯৭ সালে ওডিশার কটকে। তাই কমিটিতে রয়েছেন ওডিশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক। এ ছাড়া ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। রয়েছেন উত্তর–পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রীরাও। নেতাজির ১২৫তম জন্মবার্ষিকী পালনকে কেন্দ্র করে এবছর কেন্দ্র ও রাজ্যের মধ্যে ইতিমধ্যেই ‘প্রতিযোগিতার’ আবহ তৈরি হয়েছে। তবে এ নিয়ে কোনও রকম বিতর্ক যাতে তৈরি না হয়, সে বিষয়ে সতর্ক রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ দেখুন..