1. abrajib1980@gmail.com : মো: আবুল বাশার রাজীব : মো: আবুল বাশার রাজীব
  2. abrajib1980@yahoo.com : মো: আবুল বাশার : মো: আবুল বাশার
  3. chakroborttyanup3@gmail.com : অনুপ কুমার চক্রবর্তী : অনুপ কুমার চক্রবর্তী
  4. Azharislam729@gmail.com : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
  5. bobinrahman37@gmail.com : Bobin Rahman : Bobin Rahman
  6. farhana.boby87@icloud.com : Farhana Boby : Farhana Boby
  7. mdforhad121212@yahoo.com : মোহাম্মদ ফরহাদ : মোহাম্মদ ফরহাদ
  8. harun.cht@gmail.com : চৌধুরী হারুনুর রশীদ : চৌধুরী হারুনুর রশীদ
  9. shanto.hasan000@gmail.com : রাকিবুল হাসান শান্ত : রাকিবুল হাসান শান্ত
  10. msharifhossain3487@gmail.com : Md Sharif Hossain : Md Sharif Hossain
  11. humiraproma8@gmail.com : হুমায়রা প্রমা : হুমায়রা প্রমা
  12. dailyprottoy@gmail.com : প্রত্যয় আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রত্যয় আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  13. namou9374@gmail.com : ইকবাল হাসান : ইকবাল হাসান
  14. mohammedrizwanulislam@gmail.com : Mohammed Rizwanul Islam : Mohammed Rizwanul Islam
  15. hasanuzzamankoushik@yahoo.com : হাসানুজ্জামান কৌশিক : এ. কে. এম. হাসানুজ্জামান কৌশিক
  16. masum.shikder@icloud.com : Masum Shikder : Masum Shikder
  17. niloyrahman482@gmail.com : Rahman Rafiur : Rafiur Rahman
  18. Sabirareza@gmail.com : সাবিরা রেজা নুপুর : সাবিরা রেজা নুপুর
  19. prottoybiswas5@gmail.com : Prottoy Biswas : Prottoy Biswas
  20. rajeebs495@gmail.com : Sarkar Rajeeb : সরকার রাজীব
  21. sadik.h.emon@gmail.com : সাদিক হাসান ইমন : সাদিক হাসান ইমন
  22. safuzahid@gmail.com : Safwan Zahid : Safwan Zahid
  23. mhsamadeee@gmail.com : M.H. Samad : M.H. Samad
  24. Shazedulhossain15@gmail.com : মোহাম্মদ সাজেদুল হোছাইন টিটু : মোহাম্মদ সাজেদুল হোছাইন টিটু
  25. shikder81@gmail.com : Masum shikder : Masum Shikder
  26. showdip4@gmail.com : মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ : মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ
  27. shrabonhossain251@gmail.com : Sholaman Hossain : Sholaman Hossain
  28. tanimshikder1@gmail.com : Tanim Shikder : Tanim Shikder
  29. riyadabc@gmail.com : Muhibul Haque :
  30. Fokhrulpress@gmail.com : ফকরুল ইসলাম : ফকরুল ইসলাম
  31. uttamkumarray101@gmail.com : Uttam Kumar Ray : Uttam Kumar Ray
  32. msk.zahir16062012@gmail.com : প্রত্যয় নিউজ ডেস্ক : প্রত্যয় নিউজ ডেস্ক

পরী মণি জন্মদিবসে হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসা নাও! -নাইম ইসলাম নিবির

  • Update Time : শনিবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২১
  • ৭২ Time View

পরী মণি জন্মদিবসে হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসা নাও!

— নাইম ইসলাম নিবির। 

আজকের নিবন্ধটি লিখতে গিয়ে বেশ কিছু সময় দ্বিধাদ্বন্দের মধ্যে পড়ে যাই। শিরনাম ও আলোচনার সূচনা এবং বিস্তারিত সবকিছু মিলিয়ে মাথার ভিতর কুন্ডলী পাকিয়ে যাচ্ছিলো। যেভাবেই শিরোনাম সাজাচ্ছিলাম বারবারই তা বেশ বড় হয়ে যাচ্ছে। অবশেষে হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসা দিয়েই শুরু করলাম। আমার শিরোনাম পড়ে ইতোমধ্যে একটি দুগ্ধপোষ্য শিশুও বুঝতে পারবে যে আজকে আমাদের আলোচনার বিষয়বস্তু কি হতে যাচ্ছে এবং কেনো! আমার আজকের আলোচনা একজন সংগ্রামী নারীর শুভ জন্মদিন উপলক্ষে। এযাবৎ কালে জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় আমি যতগুলো সম্পাদকীয় লিখেছি তাতে বঙ্গবন্ধু পরিবারের বাইরে অন্য কারও জন্মদিন উপলক্ষে একটি শব্দও লিখিনি। সেদিক বিবেচনায় এই সম্পাদকীয়টি আমার জন্য নতুন এক অভিজ্ঞতা।

সেদিন কি যে এক বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়ে গিয়েছিল তা আপনাদেরকে বলে বুঝাতে পারব না। পরী মণি গ্রেপ্তারের পর আমরা যারা তাকে খুব ভালো করে জানি এবং বুঝি তারা স্বাভাবিকভাবেই পরী মণির পক্ষে অবস্থান নিয়ে তার বেদনায় দ্রবীভূত হয়েছিলাম। কারণ তার সম্পর্কে যেসকল অভিযোগ আনা হচ্ছিল তা পরী মণি করতে পারে একথা ছিলো আমাদের কাছে অবিশ্বাস্য এবং নাটকীয়। কিন্তু কিছু কিছু ব্যক্তির নিকট তা ছিলো অত্যধিক আনন্দের সংবাদ। এবং আমরা যারা কথাবার্তা–যুক্তি–ভাবভঙ্গিমায় পরী মণির পক্ষে ছিলাম তারা পরী মণির হেটার্সদের নিকট জোকার হিসেবে চিহ্নিত হয়ে গিয়েছিলাম। তবে কিভাবে–কোন ঘটনার প্রেক্ষিতে–কোন পদ্ধতিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিলো তা আপনারা সবাই অবগত। তাই আজকে তার জন্মদিনে সেদিকে আলোচনা নিয়ে আনন্দের দিনটিকে বেদনাবিধুর করবার কোনও ইচ্ছাই আমার নেই। তবে আমার মনে হয় গ্রেপ্তারের পরে কারও কারও জীবনে ঈদের দিনের মতো আনন্দ বয়ে গিয়েছিল। আবার কেউ কেউ ক্যালকুলেটর চাপতে চাপতে হাতের কব্জি সুদ্ধ ব্যাথা করে ফেলেছিলো তার কত বছরের সাজা হবে সেই হিসেব কষতে কষতে। কেউ কেউ আর বাড়িয়ে বলেই দিয়েছিলেন পরী মণির কম করে হলেও পাঁচ বছর কারাদণ্ড হয়ে যাবে। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে তার আর ঠাই হবে না। আরও অনেক অনেক কথাবার্তা সেদিন লোকমুখে শোনা যাচ্ছিল। কেউ কেউ আবার নিজেদের গা বাচাবার উদ্দেশ্যে পরী মণির সাথে মাঠে ঘাটে তোলা যত ছবি ছিলো তা সব লুকাতে ব্যস্ত হয়ে উঠেছিলো।  এবং সে লোকগুলো ছিলো তার অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ। এসব চরিত্রের লোকদের বাদ দিয়ে আজ তার জন্মদিন উদযাপন করার সিদ্ধান্তকে আমি সাধুবাদ জানাই। সেই সকল চরিত্রের মানুষ এবং পরী মণির জীবনে হাস্যোজ্জ্বল মুখের অন্তরালে জীবনের তিক্ত অভিজ্ঞতা আর অসহায়ত্ব নিয়ে আমার কিছু অভিব্যক্তি বর্ণনা করতে যাচ্ছি। পুরো আলোচনার বিষয়বস্তু বিস্তারিত লিখতে গেলে নিবন্ধের পরিধি অনেক বড় হয়ে যাবে। কাজেই সে দিনের আলোচনার চৌম্বক অংশটুকু যা কি না সকলের জন্য স্মরণ রাখা অতীব জরুরি এবং আশা করছি পাঠকদেরও যা ভালো লাগবে, তা সংক্ষিপ্তাকারে নিম্নে পেশ করছি। মানবজীবনের তাবৎ সফলতার মূলে দুটি প্রাথমিক উৎস রয়েছে। প্রথমটি হলো- মানবের অভ্যন্তরীণ উৎস যেখানে মহান আল্লাহ তাঁর বান্দার সব প্রয়োজনের রসদ-কাঁচামাল-খনিজ পদার্থ সংরক্ষণ করে রেখেছেন। এসব সম্পত্তির একটি অংশকে বস্তুগত-প্রকাশ্য অথবা দৃশ্যমান বলা যেতে পারে। এসব সম্পত্তির কার্যকারিতা বিজ্ঞান এবং গণিতের সূত্রমতো চলে। মানুষের শরীর, পরিশ্রম এবং মূলধন এই তিনটি জিনিস ব্যবহার করে সারাজীবন যা পাওয়া যায় তা এই সফলতার অন্তর্ভুক্ত। এখানে অলৌকিক, আশাতীত এবং নিয়মের বাইরে কিছু ঘটে না। মানবমণ্ডলীর ৮০ শতাংশ প্রাণী কঠোর পরিশ্রম করে মূলত তার শরীরের অভ্যন্তরের শক্তি ব্যবহার করে খুব সাদামাটা জীবনযাপন করে ভবলীলা সাঙ্গ করে থাকে।

মানবের উল্লিখিত শারীরিক শক্তিজাত সম্পদ তখনই মূল্যবান সম্পদে পরিণত হয় এবং মানুষের সফলতা বিজ্ঞান ও গণিতের সূত্র অতিক্রম করে জ্যামিতিক সূত্র অনুসরণ করে যখন তার শরীরের অভ্যন্তরের অবস্তুগত সম্পদ, বুদ্ধিমত্তার সংযোগ ঘটে। বুদ্ধির সাথে দক্ষতা-অভিজ্ঞতা এবং প্রজ্ঞা সংযুক্ত হলে মানবের শরীরজাত সব সম্পদের শ্রীবৃদ্ধি ঘটে যায়। পরবর্তী ধাপে মানব যখন তার শ্রম-মেধা ও প্রজ্ঞার সাথে মানবিক মূল্যবোধের সংযোগ ঘটায় তখন তার সব সফলতা মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে এবং সুগন্ধ ছড়াতে শুরু করে।

মানুষের শরীরের বস্তুগত ও অবস্তুগত সব সম্পদ এবং সম্পদ দ্বারা উৎপাদিত সফলতার পূর্ণতার জন্য শরীরের বাইরে প্রকৃতি ও পরিবেশের মধ্যে আল্লাহ প্রদত্ত নিয়ামতগুলোর সংযোগ আবশ্যক। এসব সম্পদের মধ্যে কয়েকটি যেমন- আলো, বাতাস, পানি সবার জন্য অবারিত। এগুলো ছাড়া অন্য নিয়ামতগুলো লুকানো থাকে মাটির উপরি ভাগে, পানির উপরি ভাগে এবং পাহাড়ের উপরি ভাগে। কিছু নিয়ামত লুক্কায়িত থাকে ভ‚মি-পানি-পাহাড়, বনাঞ্চল, মরুভূমি এবং মেরু অঞ্চলের অভ্যন্তরে। এসব নিয়ামতের সাথে মানুষের দেহজ নিয়ামতের সংযোগ ঘটানোর জন্য দরকার বিশেষ কোনো জ্ঞান বা বিজ্ঞানের দক্ষতা। মানুষ যখন এই কাজ করতে পারে তখন তার সফলতা জ্যামিতিক হার অতিক্রম করে অনন্য উচ্চতায় চলে যায়।

মানবের উল্লিখিত সহায়-সম্পদ অর্জন বা সফলতা তখনই সার্থকতা পায় যখন তা অন্য মানুষের শরীরের মধ্যে থাকা বস্তুগত ও অবস্তুগত সম্পদের সাথে সংযোগ স্থাপন করতে পারে। মানুষের অন্তরে প্রেম বা মহব্বত না থাকলে কোনো সফল মানুষই এই স্তরের সার্থকতা অর্জন করতে পারে না। একজন হাজী মোহাম্মদ মোহসীন, দানবীর রনদা প্রসাদ, আলফ্রেড নোবেল অথবা হজরত ওসমান রা:-এর মতো মর্যাদাবান ধনী ও সফল মানুষ হিসেবে সার্থকতার ইতিহাসে নিজের নাম লিখতে চাইলে আপনার অন্তর শর্তহীন মহব্বতে পরিপূর্ণ হতে হবে।

আমাদের সমাজের সফল মানুষরা সার্থকতার জন্য যখন শর্তযুক্ত চেষ্টা তদবির করেন, তখন তাদের সেই চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে যায় এবং কিছু কিছু ক্ষেত্রে গুনাহের কারণ হয়ে থাকে যাকে আরবিতে বলা হয় রিয়া, মানে সুনাম সুখ্যাতি পাওয়ার লোভ। নিজেকে বড় হিসেবে প্রমাণের প্রচেষ্টা অথবা নিজের শ্রেষ্ঠত্ব কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠার চেষ্টা অথবা কোনো পদ পদবি পুরস্কারের লোভে তাড়িত মানুষ তার সব সহায় সম্পদ এবং জীবনটি বিলিয়ে দেয়ার পরও দুনিয়া ও আখিরাতে সার্থকতা লাভ করতে পারে না। কেবল শর্তহীন মহব্বতে পরিপূর্ণ আত্মার প্রচেষ্টাই মানুষকে মাকামে মাহমুদে পৌঁছে দিতে পারে।

এখন প্রশ্ন হলো- মানুষের অন্তরকে কিরূপে শর্তহীন মহব্বত দিয়ে পরিপূর্ণ করা সম্ভব? আপনি যদি এই প্রশ্নের উত্তর জানতে চান তবে বলব, আপনাকে সোহবত শিখতে। অর্থাৎ মানুষের সাথে মেলামেশা এবং উত্তম আচরণেই কেবল অন্য মানুষের জন্য আপনার হৃদয়ে মহব্বত পয়দা হতে থাকবে। তবে আপনি যদি তরিকা না জানেন অর্থাৎ স্থান কাল পাত্র সম্পর্কে যদি আপনার জ্ঞান বুদ্ধি বিবেক ভোঁতা থাকে তবে লোকজনকে ভালোবাসতে গিয়ে আপনি আঘাত পাবেন, অপমানিত হবেন এবং ক্ষেত্রবিশেষে অত্যাচারের শিকার হবেন। সে ক্ষেত্রে শুধু তরিকা না জানার কারণে আপনার সব অর্জন বিফলে চলে যাবে।

আপনি যদি উপরোক্ত স্তরগুলো সফলতার সাথে অতিক্রম করতে পারেন তবে দৃশ্যমান সব সুখ-সম্পদ, মান-সম্মান, খ্যাতি-যশ সব কিছুই আপনার যোগ্যতা অভিজ্ঞতা শিক্ষা-দীক্ষা, পদ-পদবি এবং আপনার সময়ের সাথে সামঞ্জস্য বজায় রেখে করায়ত্ত হতে পারে যদি কোনো দৈব দুর্বিপাকের খপ্পরে না পড়েন। তবে এই স্তরের সফলতা এবং সার্থকতার কার্যকারণ আপনি যেমন বুঝতে পারবেন তদ্রুপ আপনাকে ঘিরে থাকা লোকজনও বুঝতে পারবে। অর্থাৎ আপনার মেধা শ্রম দক্ষতা শিক্ষা দীক্ষা মানবিক গুণাবলি ইত্যাদির বৈজ্ঞানিক গাণিতিক ও জ্যামিতিক সমীকরণই যে, আপনার প্রাপ্তির যোগফল তা কারোরই বুঝতে অসুবিধা হবে না। কিন্তু আপনি যদি এই সফলতা ও সার্থকতার বাইরে মহাজাগতিক বা অলৌকিক কিছু হাসিল করতে চান যার সমীকরণ বিজ্ঞান বা অঙ্ক দিয়ে মেলানো যাবে না সে ক্ষেত্রে আপনার মহব্বত তরিকত হকিকতকে ঊর্ধ্বলোকে নিয়ে যেতে হবে মহান আল্লাহর দরবারে এবং সেখানে যাওয়ার সব বন্দোবস্তু কিন্তু আপনার দেহের মধ্যেই লুকানো রয়েছে। আপনাকে শুধু একটু কষ্ট করে অন্তর্লোকে অনুসন্ধান চালিয়ে ঊর্রধ্বলোকের বাহন এবং অন্য পাথেয়গুলো খুঁজে বের করতে হবে। আর তখনই আপনি হয়ে উঠবেন পরিপূর্ণ মানুষ বা আশরাফুল মাখলুকাতের অতি উঁচু স্তরের সম্মানিত ও মর্যাদাবান ব্যক্তিত্ব!

পরিশেষে পরী মণির শুভ জন্মদিবস উপলক্ষে তাকে ও তার সকল ভক্ত অনুসারী ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের প্রতি অসংখ্য শুভেচ্ছা ও প্রাণঢালা ভালোবাসা নিবেদন করে। পরী মণির আগামী দিনের জন্য মহান আল্লাহ তায়া’লা নিকট দোয়া প্রার্থনা ও একইসাথে আজকের দিনে পরী মণির জন্মদাতা পিতা–মাতার আত্মার মাগফিরাত কামনা করে আজকের আলোচনা সমাপ্ত ঘোষণা করছি _ শুভ জন্মদিন পরী মণি।

 

নাইম ইসলাম নিবির : রাজনীতিক ও কলামিস্ট

www.facebook.com/politician.nayeem.nibir

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ দেখুন..