1. abrajib1980@gmail.com : মো: আবুল বাশার রাজীব : মো: আবুল বাশার রাজীব
  2. abrajib1980@yahoo.com : মো: আবুল বাশার : মো: আবুল বাশার
  3. chakroborttyanup3@gmail.com : অনুপ কুমার চক্রবর্তী : অনুপ কুমার চক্রবর্তী
  4. Azharislam729@gmail.com : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
  5. farhana.boby87@icloud.com : Farhana Boby : Farhana Boby
  6. mdforhad121212@yahoo.com : মোহাম্মদ ফরহাদ : মোহাম্মদ ফরহাদ
  7. harun.cht@gmail.com : চৌধুরী হারুনুর রশীদ : চৌধুরী হারুনুর রশীদ
  8. shanto.hasan000@gmail.com : রাকিবুল হাসান শান্ত : রাকিবুল হাসান শান্ত
  9. humiraproma8@gmail.com : হুমায়রা প্রমা : হুমায়রা প্রমা
  10. dailyprottoy@gmail.com : প্রত্যয় আন্তর্জাতিক ডেস্ক : প্রত্যয় আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  11. namou9374@gmail.com : ইকবাল হাসান : ইকবাল হাসান
  12. hasanuzzamankoushik@yahoo.com : হাসানুজ্জামান কৌশিক : এ. কে. এম. হাসানুজ্জামান কৌশিক
  13. masum.shikder@icloud.com : Masum Shikder : Masum Shikder
  14. niloyrahman482@gmail.com : Rahman Rafiur : Rafiur Rahman
  15. Sabirareza@gmail.com : সাবিরা রেজা নুপুর : সাবিরা রেজা নুপুর
  16. prottoybiswas5@gmail.com : Prottoy Biswas : Prottoy Biswas
  17. rajeebs495@gmail.com : Sarkar Rajeeb : সরকার রাজীব
  18. sadik.h.emon@gmail.com : সাদিক হাসান ইমন : সাদিক হাসান ইমন
  19. mhsamadeee@gmail.com : M.H. Samad : M.H. Samad
  20. Shazedulhossain15@gmail.com : মোহাম্মদ সাজেদুল হোছাইন টিটু : মোহাম্মদ সাজেদুল হোছাইন টিটু
  21. shikder81@gmail.com : Masum shikder : Masum Shikder
  22. showdip4@gmail.com : মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ : মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ
  23. shrabonhossain251@gmail.com : Sholaman Hossain : Sholaman Hossain
  24. tanimshikder1@gmail.com : Tanim Shikder : Tanim Shikder
  25. riyadabc@gmail.com : Muhibul Haque :
  26. Fokhrulpress@gmail.com : ফকরুল ইসলাম : ফকরুল ইসলাম
  27. uttamkumarray101@gmail.com : Uttam Kumar Ray : Uttam Kumar Ray
  28. msk.zahir16062012@gmail.com : প্রত্যয় নিউজ ডেস্ক : প্রত্যয় নিউজ ডেস্ক

সব খোলা, শপিংমল-মার্কেট নয় কেনো!!! বগুড়ায় মানববন্ধনে ব্যবসায়ীরা

  • Update Time : বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ২২২ Time View

রাকিব শান্ত, উত্তরবঙ্গ ব্যুরো প্রধানঃ

স্বাস্থ্যবিধি মেনে শপিংমল -দোকানপাট খোলা রাখার দাবীতে সারাদেশের মত বগুড়ায় ব্যবসায়ীরা বিক্ষোভ-সমাবেশ করেছেন। বগুড়ার নিউ মার্কেট, রেলওয়ে হকার্স মার্কেট, শেখ সরিফ উদ্দিন সুপার মার্কেট, টিএমএসএস মোবাইল মার্কেট সহ শহরের বিভিন্ন মার্কেট এর ব্যবসায়ীরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেন। জানা যায় দেশের বিভিন্ন জেলাতেও ব্যবসায়ীরা একইভাবে বিক্ষোভ-সমাবেশ করেছেন।

আজ বুধবার সকালে নিউ মার্কেটের ব্যবসায়ীরা শ্যামলী হোটেলের সামনে সকাল ১০ ঘটিকায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে। সেখানে ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ স্বাস্থ্যবিধি মেনে শপিংমল ও দোকানপাট খোলা রাখার দাবি জানান।

এরপর তারা শহরের প্রাণকেন্দ্র সাতমাথায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করেন। এসময় তাদের সাথে একে একে শহরের অন্যান্য মার্কেট ও শপিংমল এর মালিক শ্রমিকেরা যোগ দান করেন। দেখতে দেখতে মানববন্ধন বিরাট আকার ধারন করে। সাতমাথায় বিভিন্ন মার্কেটের কমিটির নেতৃবৃন্দ বক্তব্য প্রদান করে। এরপর তারা জেলা প্রশাসকের কার্যালয় অভিমূখে যাত্রা আরম্ভ করে।

জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে তারা স্বারকলিপি দেন। দোকানপাট খুলে ব্যবসাবাণিজ্য করার সুযোগ দেওয়াত দাবিতে টাটা বিক্ষোভ করেন। সমাবেশে তাদের ব্যানারে লিখা ছিলো, ‘লকডাউন প্রত্যাহার করুন, অর্থনীতির চাকা সচল করুন- লকডাউন প্রত্যাহার করুন, অনাহারের বিরুদ্ধে লড়াই করুন’, ‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমরা মার্কেট খুলতে চাই’, ‘করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের আকুতি ‘।

সেখ শরীফ উদ্দিন মার্কেটের কর্মচারী রুবেল বলেন, “গতবছর লকডাউনে কোনও রকমে জীবনটা নিয়ে বেচে ছিলাম। খরচ কমাতে বউ বাচ্চা গ্রামে পাঠিয়ে দিয়েছিলাম। এরপরও চলতে না পেরে আত্মীয় স্বজনের কাছে হাত পেতেছি। ধারদেনা করে কোনও রকমে সুদিনের অপেক্ষায় ছিলাম। কিন্তু হঠাৎ করে লকডাউন দেয়ায় চোখে মুখে অন্ধকার দেখছি। দোকান খুলতে না পারলে বেচা বিক্রি না করতে পারতে মালিক তো এবারও বেতন দিবেনা।”

নিউ মার্কেট এর ইমিটেশন ব্যবসায়ী শিপলু রহমান বলেন, “সাধারণ দোকান মালিকদের দুঃখ কেও বোঝেনা। মালিক সমিতির নেতারা তাদের পদ পদবি ঠিক রাখতে সরকারের কাছে তাদের দুঃখ কস্টের কথা বলেনা। তিনি বলেন গতবছির লকডাউনে নিঃস্ব হয়ে গেছি। সেই ক্ষতি পুশিয়ে উঠতে পারিনি। এরপরেও ধারদেনা করে নতুন করে বাচার তাগিতে দোকান চালু করেছি। ভেবেছিলাম এবার ঈদে বৈশাখে সেই ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে পারব। কিন্তু সেটা আর হলো না। বৈশাখ উপলক্ষে যে প্রস্তুতি নিয়েছিলাম সেটার পুরোটায় এখন লোকসানের খাতায়। দোকান ভাড়া, বিদ্যুৎ বিল, কর্মচারীদের বেতন কিভাবে দেন? তিনি আরও বলেন, যারা রেডিমেড থ্রি-পিস ও থান কাপড়ের ব্যবসা করেন তারা সবায় চোখেমুখে অন্ধকার দেখছেন। লকডাউনে দোকান বন্ধ থাকায় এখন বিক্রেতারা আসতে পারছেন না। রোজা শুরু হলে তখন আর কেউ কাপড় নেবে না।”

লকডাউনের বিরুদ্ধে বগুড়ার ব্যবসায়ীরা মানববন্ধনে বলেন, তারা লকডাউন বহনে সক্ষম নন। লকডাউন তুলে না নিলে জীবন ও জীবিকার উপরে তা৷ আঘাত হানবে। এছারাও প্রায় সারাদেশেই লকডাউনের বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ সমাবেশের খবর পাওয়া গেছে। তাদের প্রশ্ন, “সব খোলা, শপিংমল-মার্কেট নয় কেনো।”

Please Share This Post in Your Social Media

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ দেখুন..